May 22, 2020

দুই এতিম শিশুর জন্য খাদ্য সামগ্রী বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্যের

খালার বাসায় থেকে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ভিক্ষা করে ছোট বোনসহ নিজের রুটিরুজি করতো শিশু ইয়াসিন। বিনিময়ে ওই খালাকে প্রতিদিন ১শ’ টাকা করে দিত সে। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকায় ছোট বোনকে নিয়ে বিপাকে পড়ে শিশু ইয়াসিন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শিশু ইয়াসিনের একটি ভিডিওটি চোখে পড়তেই শনিবার কর্মচারী পাঠিয়ে তার (ইয়াসিন) খোঁজ খবর নিলেন বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. ছাদেকুল আরেফিন।ব্যক্তিগত তহবিল থেকে পাঠিয়ে দিলেন প্রয়োজনীয় খাদ্য ও করোনা প্রতিরোধ সামগ্রী।
ইয়াসিনের খালা নূরজাহান জানান, ইয়াসিনের বয়স যখন ৩ বছর তখন ১ বছর বয়সী আরেকটি মেয়ে সন্তান রেখে তাদের মা মারা যায়। স্ত্রী মারা যাওয়ার পর ইয়াসিনের বাবা অন্যত্র আরেকটি বিয়ে করে লাপাত্তা হয়ে যায়।সেই থেকে গত ৭ বছর ধরে ইয়াসিন ও তার বোনকে দেখাশোনা করছে। থাকছে তাদের বাসায়। কিন্তু অর্থ সংকটে তাদের নিজেদেরই ঠিকভাবে চলছিলো না। তাই বাধ্য হয়ে ইয়াসিনকে ভিক্ষা করতে হয়। বেশির ভাগ সময়ে ভিক্ষা করতো বিশ্ববিদ্যালয়ে।
সেই টাকা দিয়ে কিছু অর্থ তাদের সাথেই থাকা খাওয়া হয় ইয়াসিন ও তার বোনের।
বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. ছাদেকুল আরেফিন বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের তৈরি করা একটি ভিডিও দেখার পর ইয়াসিনের ব্যাপারে খোঁজ খবর নেন তিনি। এরপর কর্মচারী পাঠিয়ে ব্যক্তিগতভাবে কিছু খাদ্য সামগ্রী পাঠিয়েছেন। এটা তেমন কিছু নয়। যারা ওই ভিডিওটি তৈরি করেছে তাদের ধন্যবাদ জানান উপাচার্য।  015425_bangladesh_pratidin_bbccc

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *