April 02, 2020

এইমাত্র পাওয়া সংবাদ

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের অর্থ ও প্রকল্প খেকু আরেক উইপোকা জামাত শিবির জঙ্গীদের অর্থ যোগান দাতা ডিএস সিসির তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী কাজী বোরহানের অজানা রহস্য

79338035_712865265789607_7874702694743539712_n

received_1449502788543013.jpeg

জোসনা মেহেদী:

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী কাজী বোরহান জামাত শিবিরের একনিষ্ঠ কর্মী। বিএনপি সরকারের আমলে যুদ্ধাপরাধী গোলাম আজমের সহযোগিতায় শুরু করেন ঠিকাদারী। বিএনপির সাবেক সাংসদ হারুনুর রশিদ চাঁদপুর ফরিদগঞ্জের নির্বাচনী এলাকায় বিএনপি সরকার থাকাকালীন সময়ে ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেন অভিযুক্ত প্রকৌশলী। বর্তমানে ঢাকা দক্ষিন সিটি কর্পোরেশনের তত্বাবধায়ক প্রকৌশলীর দাপটে মুক্তিযোদ্ধার স্বপক্ষের লোকদের জিম্মি করে সিটি কর্পোরেশনের অর্থ ব্যাপকভাবে লুটপাটে সম্পৃক্ততা রয়েছে তার। বিএনপি সরকার থাকাকালীন সময়ে সাবেক সাংসদ হারুনুর রশিদের নাজমা কন্ট্রাকশনে চাকুরীতে নিয়োজিত ছিলেন এবং তিনি কুঁখ্যাত যুদ্ধাপরাধী গোলাম আজমের বাসায় ভাড়াটিয়া ছিলেন বলে জানা যায়। তারই সুবাদে কাজী বোরহান ২০০১ সালে বিএনপি জামাত শিবিরের সহযোগিতায় ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের সহকারী প্রকৌশলী পদে চাকুরীতে অধিষ্টিত হয়। যার কৃতজ্ঞতার স্বীকৃতি স্বরুপ জামাত শিবিরকে অর্থের যোগানদাতা ছিলেন বলে অভিযোগ রয়েছে। অভিযুক্ত প্রকৌশলী ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের বিভিন্ন প্রকল্পের শত শত কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। ১৯৮৬ সালে চাঁদপুর ফরাজিয়া কান্দিয়া ওয়াইসিয়া সিনিয়র মাদ্রাসা থেকে দাখিল পাস করেন। এরপর সেখান থেকেই সরাসরি শিবিরের রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়েন। তার গ্রামের বাড়ি চাঁদপুর জেলার মতলব উপজেলায়। পিতা আব্দুল মতিন কাজী। ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সাদেক হোসেন খোকার আমলে বর্তমানে মালয়েশিয়ায় পলাতক সাবেক কমিশনার এম এ কাইউমের সহযোগিতায় সিনিয়রদেরকে ডিঙ্গিয়ে উচ্চ পদে নির্বাহী ইঞ্জিনিয়ার হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। ইতিপূর্বে তার বিরুদ্ধে লুটপাট, প্রকল্পের অর্থ আত্মসাত ও বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে। মাদারটেক নতুনপাড়া বাইলেন হোল্ডিংয়ের রাস্তা নির্মান কাজে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে তার বিরুদ্ধে। পরবর্তীতে তার বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশ হইলে সংশ্লিষ্ট ফাইলটি প্রকৌশলী নিজেই গায়েব করে দেয়ারও অভিযোগ রয়েছে। এ ছাড়াও ২০২০ সালে শ্যামপুর, ধনিয়া, ডেমরা ইউনিয়ন এলাকার প্রকল্পের কাজ না করে ঠিকাদারের যোগসাজসে কোটি কোটি টাকার বিল তুলে নিয়েছেন।
উল্লেখ্য অভিযুক্ত প্রকৌশলী কাজী বোরহানের নামে বেনামে আনুমানিক প্রায় ৩০০ কোটি টাকার সম্পদ রয়েছে বলে জানা যায় এবং বিদেশে অর্থ পাচারসহ বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে ঠিকাদার ও একাধিক সূত্রে জানা যায় অচিরেই অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মোঃ আসাদুজ্জামান ও তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী কাজী বোরহানের নামে দুদক সহ সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিভাগে অভিযোগ দাখিল করবে বলে জানা যায়।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *