April 02, 2020

এইমাত্র পাওয়া সংবাদ

আইসিসির প্রস্তাবে বিসিসিআইয়ের ভেটো!

06_67538

বিশ্ব ক্রিকেটে সবচেয়ে প্রভাবশালী ক্রিকেট বোর্ড হিসেবে পরিচিত বিসিসিআই। ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসির সাথে মাঝে মাঝেই ভারতীয় বোর্ডটির মতবিরোধ দেখা যায়। এবারে আইসিসির নতুন নতুন টুর্নামেন্ট প্রস্তবনার বিপক্ষেও সরাসরি কথা বললো বিসিসিআই।

টি-টোয়েন্টি চ্যাম্পিয়ন্স কাপ ও ওডিআই চ্যাম্পিয়ন্স কাপ নামে দুইটি নতুন টুর্নামেন্ট চালুর কথা জানিয়েছে আইসিসি। এই টুর্নামেন্ট দুইটি ছেলে ও মেয়ে উভয়ের ক্ষেত্রেই আয়োজন করা হবে। কিন্তু আইসিসির এই প্রস্তাববে রাজি নয় প্রভাবশালী বোর্ডগুলো। বিসিসিআইয়ের এক কর্মকর্তা তো সরাসরিই বললেন, বিসিসিআই ও ইসিবির (ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড) বিপক্ষে দাঁড়াচ্ছে আইসিসি।

তার ভাষায়, ‘আমি বুঝে উঠতে পারছি না কেন বিসিসিআই ও ইসিবির বিপক্ষে দাঁড়াচ্ছে তারা। আইসিসির এই পুরো পরিকল্পনা অপ্রয়োজনীয়। আমি প্রশ্ন তুলছি এই প্রস্তাব নিয়ে।’

বিসিসিআইয়ের এই কর্মকর্তার ‍মুখে অবশ্য এই প্রস্তাবে রাজি না থাকার পেছনে বোর্ডের নিজস্ব লাভ-লোকসানের কথাও উঠেছে। দ্বিপাক্ষিক সিরিজ কিংবা ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্টগুলো সময়ের অভাবে আয়োজন করা না গেলে আর্থিক ক্ষতি হয়ে যাবে বোর্ডগুলোর।

বিসিসিআই কর্মকর্তা বলেন, ‘আমরা এই ব্যাপারে খুব পরিষ্কার অবস্থানে আছি। দেখা গেল, কোনো গুরুত্বপূর্ণ বোর্ড এই প্রস্তাবে আগ্রহ দেখাল না, তখন আইসিসি কী করবে? আসরগুলো কী আইসিসির একার? এভাবে প্রতিবছর আইসিসির আসর করায় আসলে ক্রিকেটকে বিশ্বে ছড়িয়ে দেওয়া নয়, এটি আইসিসিকে বুঝতে হবে। দ্বিপাক্ষিক খেলাও অনেক গুরুত্ববহ। এসব আসরগুলো আইপিএল, বিগ ব্যাশ ও দ্বিপাক্ষিক সিরিজে প্রভাব ফেলবে। আর খেলোয়াড়দেরও ত বিশ্রামের প্রয়োজন আছে।’

অবশ্য বিসিসিআইয়ের এই যুক্তিও ভুল নয়, প্রতিবছর বৈশ্বিক আসর হলে সেটার প্রতি আগ্রহ হারিয়ে যাবে। বিসিসিআই সদস্যের কন্ঠে, ‘এভাবে প্রতিবছর আইসিসি আসর আয়োজন করলে বিশ্বকাপ দেখার আগ্রহ খুঁইয়ে বসবে ক্রিকেটপ্রেমিরা।’

প্রসঙ্গত, ২০২৩ ও ২০২৭ সালে নারী ওডিআই চ্যাম্পিয়ন্স কাপ এবং ২০২৪ ও ২০২৮ সালে নারী টি-টোয়েন্টি চ্যাম্পিয়ন্স কাপ আয়োজন করার কথা জানানো হয়েছে। তাছাড়া ২০২৫, ২০২৯ সালে নারী ওডিআই বিশ্বকাপ এবং ২০২৬ ও ২০৩০ সালে নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ।

ছেলেদের টি-টোয়েন্টি চ্যাম্পিয়ন্স কাপ ২০২৪ ও ২০২৮ সালে, ২০২৫, ২০২৭, ২০২৯ ও ২০৩১ সালে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল, ২০২৫ ও ২০২৯ সালে ওডিআই চ্যাম্পিয়ন্স কাপ, ২০২৬ ও ২০৩০ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ এবং ২০২৭ ও ২০৩১ সালে ওডিআই বিশ্বকাপ রাখা হয়েছে আইসিসির নতুন প্রস্তবনায়। এছাড়া ২০২৩ সালে ওডিআেই বিশ্বকাপ তো আগেই ঠিক করা আছে।

টি-টোয়েন্টি চ্যাম্পিয়ন্স টুর্নামেন্টগুলোতে র‌্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষ ১০ দল খেলবে। যেখানে মোট ম্যাচ আয়োজন করা হবে ৪৮টি। ওয়ানডে চ্যাম্পিয়ন্স কাপে খেলবে র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ ৬ দল।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *