January 20, 2021

এইমাত্র পাওয়া সংবাদ

নিখোঁজের ১১ মাস পর কিশোরীর মরদেহ উদ্ধার

মাদারীপুর জেলার কালকিনির ডাসার থানার পূর্ব বোতলা গ্রামে নিখোঁজের ১১ মাস পর এক কিশোরীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল শনিবার (৯ জানুয়ারি) দিবাগত রাতে সাহাবুদ্দিন আকন নামের এক যুবকের বাড়ির সেপটিক ট্যাংকি থেকে মরদেহটি উদ্ধার করে পুলিশ।

স্থানীয় ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, মাদারীপুর জেলার ডাসার থানার পূর্ব বোতলা গ্রামের চাঁনমিয়া হাওলাদারের দশম শ্রেণী পড়ুয়া মেয়ে মুর্শিদা আক্তারের সঙ্গে একইগ্রামের মজিদ আকনের ছেলে সাহাবুদ্দিন আকনের প্রেমের সম্পর্ক হয়। এই সম্পর্কের সূত্র ধরেই গত বছরের ফ্রেব্রুয়ারি মাসে মুর্শিদাকে বাড়ি থেকে চিকিৎসা করানোর কথা বলে নিয়ে যায় সাহাবুদ্দিন।

এরপর নিখোঁজ থাকায় গত বছরের ১৮ ফেব্রুয়ারি মুর্শিদার পরিবার ডাসার থানায় একটি জিডি করে। মেয়ের খোঁজ না পাওয়ায় গত বছরের ৪ মার্চ সাহাবুদ্দিনসহ পাঁচজনকে আসামি করে ডাসার থানায় একটি মামলা করেন মুর্শিদার মা মাহিনুর বেগম।

দীর্ঘদিন মামলার কোনো অগ্রগতি না হওয়ায় মামলাটি পিবিআইতে স্থানান্তরের আবেদন করে বাদী পক্ষ। পরে মামলাটি মাদারীপুর গোয়েন্দা পুলিশ তদন্তভার গ্রহণ করে।এরপর গত বৃহস্পতিবার মামলার আসামি সাহাবুদ্দিন আকন আদালতে আত্মসমর্পণ করে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গোয়েন্দা পুলিশের এসআই তারিকুল ইসলাম আসামি সাহাবুদ্দিনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১০ দিনের রিমান্ডের জন্য আদালতে আবেদন করেন। পরে আদালত দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে। গতকাল শনিবার বিকেলে সাহাবুদ্দিন হত্যাকাণ্ডে নিজের সম্পৃক্ততার কথা গোয়েন্দা পুলিশের কাছে স্বীকার করে এবং লাশ গুম করার কথাও স্বীকার করে।সাহাবুদ্দিনের দেওয়া তথ্য মোতাবেক রাত ৮টার দিকে সাহাবুদ্দিনের বাড়ির সেপটিক ট্যাংক থেকে মুর্শিদার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

মাদারীপুর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল হান্নান মিয়া বলেন, সাহাবুদ্দিনের দেওয়া তথ্যে আসামির বাড়ির সেফটিক ট্যাংকি থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। আসামিকে আরও জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।082152_bangladesh_pratidin_madaripur

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *