August 14, 2018

এইমাত্র পাওয়া সংবাদ

ইসির টেনশনে তিন দল অক্টোবরে সংলাপ আওয়ামী লীগ বিএনপি জাতীয় পার্টির সঙ্গে.

অক্টোবরের মাঝামাঝি আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টির সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ সংলাপে বসছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এই প্রধান তিন দলের সঙ্গে সংলাপ নিয়ে নির্বাচন কমিশন অনেকটা টেনশনে রয়েছে।

বিশেষ করে নতুন কমিশনের প্রতি বিএনপির আস্থা অর্জন, সরকারি ও বিরোধী দলকে সংলাপে সমানভাবে মূল্যায়নের বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হচ্ছে। এ সংলাপের মাধ্যমে আগামী নির্বাচনের জন্য প্রয়োজনীয় আইন সংস্কারে তিন দলের গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ প্রত্যাশা করছে ইসি।Bd-pratidin-30-09-17-F-01বিশ্লেষকদের মতে, এই তিন দলের সংলাপের ওপর নির্ভর করছে অনেক কিছু। সমকালীন রাজনীতি, নির্বাচনকালীন সরকারব্যবস্থা, নির্বাচনে সেনা মোতায়েন, ‘না ভোট’ চালুসহ আলোচিত ও প্রাসঙ্গিক অনেক বিষয় নিয়ে সংলাপে আলোচনা হতে পারে। একই সঙ্গে সরকারি ও বিরোধী দলের তির্যক সমালোচনা শুনতে হতে পারে কমিশনকে। এসব প্রেক্ষাপট সামনে রেখে তিন দলের সংলাপ অনুষ্ঠানে বিশেষ প্রস্তুতি নিচ্ছে ইসি সচিবালয়। তাদের অভ্যর্থনা থেকে শুরু করে সব আনুষ্ঠানিকতা সুন্দরভাবে শেষ করতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে কর্মকর্তাদের। এমনকি নেতাদের কারা অভ্যর্থনা জানাবেন তাও আগে নির্ধারণ করা হচ্ছে। ইসি সচিবালয় জানিয়েছে, আওয়ামী লীগের সঙ্গে ১৮, বিএনপির সঙ্গে ১৫ ও জাতীয় পার্টির সঙ্গে ৯ অক্টোবর সংলাপে বসার কথা রয়েছে। এজন্য প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি শেষ করেছে ইসি। এবার দলগুলোকে নিবন্ধনক্রমের নিচ থেকে (নিবন্ধন নম্বর ৪২ থেকে ১) আমন্ত্রণ জানানো হয়। সে হিসাবে জাতীয় পার্টির জন্য ৯ অক্টোবর, বিএনপির জন্য ১২ অক্টোবর ও আওয়ামী লীগের জন্য ১৫ অক্টোবর সংলাপসূচির প্রস্তাব করা হয়েছিল। দলগুলোর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে দলীয় কর্মসূচি ও সরকারি অনুষ্ঠানের কথা বিবেচনায় নিয়ে প্রধান দলগুলোর সময়সূচি পরিবর্তন করে কমিশন। ইসি কর্মকর্তারা জানান, বিএনপির সঙ্গে যোগাযোগ করে প্রস্তাবিত সময়সূচি জানানো হলে দলের পক্ষ থেকে কর্মসূচির কথা বিবেচনায় নিয়ে ১৫ অক্টোবর আমন্ত্রণ জানানোর অনুরোধ করা হয়। আওয়ামী লীগকে প্রস্তাবিত সময় নিয়ে চিঠি দিলে একনেক ও মন্ত্রীদের গুরুত্বপূর্ণ অনুষ্ঠান বিবেচনায় নিয়ে ১৮ অক্টোবর সময়সূচি রাখার অনুরোধ আসে। সে হিসাবে তাদের আমন্ত্রণও জানানো হয়েছে। ইসি সচিবালয়ের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এই তিন দলের সংলাপের জন্য বিশেষভাবে প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। সংলাপে অভ্যর্থনা জানানো থেকে শুরু করে, সংলাপকক্ষের সাজগোজ, সাউন্ড সিস্টেম, চা-নাস্তাসহ সব আয়োজন করা হচ্ছে সতর্কতার সঙ্গে, যাতে কোনো কিছুতেই ত্রুটি না থাকে।

অন্যান্য দলের সংলাপসূচি : ইসি জানিয়েছে, প্রধান তিন দলের আগে ও পরে অন্য কয়েকটি দলের সঙ্গে সংলাপ সারবে ইসি। ২ অক্টোবর বেলা ১১টায় বাংলাদেশ মুসলিম লীগ; বিকাল ৩টায় বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন। ৪ অক্টোবর বেলা ১১টায় বাংলাদেশ তরীকত ফেডারেশন; বিকাল ৩টায় বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি (বিজেপি)। ৫ অক্টোবর বেলা ১১টায় বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ), বিকাল ৩টায় জাকের পার্টি। ৮ অক্টোবর বেলা ১১টায় জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি); বিকাল ৩টায় জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ)। ১০ অক্টোবর সকালে বিকল্পধারা বাংলাদেশ; বিকালে ইসলামী ঐক্যজোট। ১১ অক্টোবর সকালে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি; বিকালে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি। ১২ অক্টোবর সকালে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি; বিকালে গণতন্ত্রী পার্টি। ১৬ অক্টোবর সকালে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ; বিকালে বাংলাদেশের সাম্যবাদী দল (এমএল)। ১৯ অক্টোবর সকালে জাতীয় পার্টি (জেপি); বিকালে লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি)। এরপর ২২ অক্টোবর পর্যবেক্ষক, ২৩ অক্টোবর নারী নেত্রী ও ২৪ অক্টোবর নির্বাচন বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে মতবিনিময় করবে ইসি। এর আগে ৩১ জুলাই সুশীলসমাজ, ১৬ ও ১৭ আগস্ট গণমাধ্যম প্রতিনিধিদের সঙ্গে মতবিনিময়ের পর ২৪ আগস্ট দলগুলোর সঙ্গে সংলাপ শুরু করে কমিশন।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *