August 20, 2018

এইমাত্র পাওয়া সংবাদ

ডিপিসির সহকারী লাইন ম্যান জহির দুর্নীতির মাধ্যমে লক্ষ লক্ষ টাকা লুটে নিচ্ছে। ব্এিনপি জামায়াত শিবিরের গুপ্তচর হিসেবে ডিপিডিসিতে কাজ করছেন।

ডিপিসির সহকারী লাইনম্যান জহির প্রতিষ্ঠানে দুর্নীতির মাধ্যমে অকেজো ট্রান্সমিটার ও পুরাতন তার খুলে এনে বাজারে বিক্রি করেছেন। অফিসে নামমাত্র একটি অংশ জমা দেন, এইভাবে প্রতিদিন লুটপাট করছে লক্ষ লক্ষ টাকা। এই দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ একান্ত প্রয়োজন। মোঃ জহির, পিতা-আবুল বাশার, গ্রাম-সংহাই, থানা-শাহরাস্তি, জেলা-চাঁদপুর। বর্তমানে তিনি  সেগুনবাগিচা, বঙ্গভবন, গুলিস্তান এলাকার গ্যাংদের সাথে কাছ করছেন। বিএনপি সরকার ক্ষমতায় থাকাকালীন শ্রমিক দলের সাকেব সাধারণ নজরুল ইসলামের ব্যক্তিড়ত পিয়ন হিসেবে ডেসা অফিস আ:গণি রোডে (ইউনিয়ন অফিস) কর্মরত ছিলেন। পূর্বে নজরুল সাহেবের বাসায় থাকতেন। ঐ সুবাধে নজরুল ইসলাম তাহাকে ডিপিডিসিতে হেলপার হিসেবে চাকুরী দেন। বর্তমানে যে গ্যাংদের সাথে কাজ করেন ঐ গ্যাংদের সাথে যোগসাজস করে কোন ট্রান্সমিটার নষ্ট হলে ঐ ট্্রান্সমিটার উপর থেকে কেটে এনে ট্রান্সমিটারের ভীতরে মালামাল ভাঙ্গীরর দোকানে বিক্রি করছেন। প্রতিদিন এই সব অপকর্ম করে আসছে এবং সংযোগ দেওয়ার নামে এলাকাবাসীর কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা নিচ্ছেন এবং সাইড লাইন দিয়ে মোটা অংকের অর্থ নিচ্ছে। এই জহির বিএনপি জামায়াত শিবিরের গুপ্তচর হিসেবে কাজ করছেন। ডিপিডিসিতে কখন কি হয় বিএনপি কার্যালয়ে পৌছে দিচ্ছে। দিনের বেলায় ডিপিডিসিতে রাত্রে বেলায় বিএনপি অফিসে কাজ করছেন। ডিপিডিসিতে একটি গুরুত্বপূর্ণ সংস্থা। আর এই সংস্থায় কর্মরত রয়েছে জামায়ত শিবির বিএনপি সহযোগি। তার বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ রয়েছে। এ বিষয়ে মোঃ রফিক উদ্দিন ডিপিডিসির ও সচিব, বিদ্যুৎ বিভাগ অভিযোগ রয়েছে।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *