October 18, 2018

শাহরাস্তির ফেরুয়া বাজারের দারুল কোরআন হাসানুল উলুম এতিম খানা ও লিল্লাহ বোডিং এর এতিমদের গোসল ও ওজু খানা ভেঙ্গে বরিশাল বিভাগের অসাধু পুলিশ কনেস্টবল বিল্লাল হোসেন জোড় পূর্বক দোকানঘর নির্মাণ। মহা পুলিশ পরিদর্শক এর হস্তক্ষেপ কামনা ।

শাহরাস্তি উপজেলা সংহাই গ্রামের মৃত এছহাক মিয়ার পুত্র মোঃ বিল্লাল হোসেন, পুলিশ কনেস্টবল, তিনি বর্তমানে বরিশাল বিভাগের বরিশাল সদর মডেল থানায় কর্মরত আছেন বলে জানা যায়। তিনি পুলিশ বাহিনীতে থাকিয়া পুলিশের ভাবমূর্তি ব্যাপক ক্ষুন্ন করছেন। পুলিশে চাকুরী নেওয়ার পূর্বে তাহার বিরুদ্ধে নারী নির্যাতনসহ নানা অপর্কম ছিল। তিনি উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নাম ভাঙ্গিয়ে নিজ এলাকায় শাহরাস্তি সংহাই, ফেরুয়া গ্রামে জনসাধারণকে পুলিশের ভয়ভীতি দেখাইয়া হয়রানী করছেন।  অভিযোগে জানা যায় পুলিশের ভয়ভীতি দেখাইয়া ফরুয়া বাজারের দারুল কোরআন হাসানুল উলুম এতিম খানা ও লিল্লাহ বোডিং এর এতিমদের গোসল ও ওজু খানা ভেঙ্গে তিনি ও তার পরিবারের সদস্যদেরকে সরকারী খালে উপরে একটা মিনি মার্কেট তৈরী করে ভাড়া দিতেছেন। এই ভাবে গোটা এলাকা এক নৈরাজ্য সৃষ্টি করেছেন যাহা পুলিশ বাহিনী ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হচ্ছে। ৭ মে ২০১৬ ইউপি নির্বাচনের দিন পুলিশের ভয়ভীতি দেখাইয়া এলাকার বৃদ্ধ মহিলা ও পুরুষদের ভোট নিজেই সিল মেরে দেন। অপর প্রার্থীর কাছ থেকে মোটা অর্থ নিয়ে। এতে করে এলাকায় নিন্দা ও প্রতিবাদ করছে। সংহাই গ্রামের ৭নং ওয়ার্ডের মেম্বার পদ প্রার্থী মিজানুর রহমান তপদার বলেন তার প্রতিপক্ষের কাছ থেকে একলক্ষ টাকা খেয়ে কেন্দ্রের পুশিলদের হাত করে ৯৬টি ভোট কারচুরি করিয়া প্রতিপক্ষকে বিজয় করিয়া ঐদিন রাত্রে এলাকা থেকে পালাইয়া বরিশাল গিয়াছে। এলাকার জনতা বলেন- বিল্লাল হোসেনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেওয়া হলে যে কোন সময় যে কোন রক্তক্ষয়ী সংর্ঘষ ঘটবে। তাই বিষয়টি মাননীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছেন এলাকাবাসী।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *