August 15, 2018

এইমাত্র পাওয়া সংবাদ

সেনাবাহিনী না দেয়ায় নির্বাচন সুষ্ঠু হচ্ছে না

photoসরদার শাহাদাৎ হোসেন ॥

ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, মারামারি, রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ, গোলাগুলি এ পর্যন্ত শতাধিক আহত, একজন নিহত হওয়ার মধ্য দিয়ে সারাদেশে ব্যালট বাক্স ছিনতাই, সরকারি ও দলীয় ক্যাডারদের ব্যালটে সিল, আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ কর্মীদের নির্বাচনী কেন্দ্র দখলে সারাদেশে ২৩৪টি পৌরসভায় নির্বাচন চলছে। এই নির্বাচনে বিএনপি’র টার্গেট ছিল ১৬০ ও আওয়ামী লীগের টার্গেট ছিল ২০১ টি তে বিজয়ী হওয়ার। এর মধ্যে অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে যে, সকাল ৮ টার মধ্যে অনেক ভোটকেন্দ্রে ভোট সমাপ্ত হয়ে গেছে। অনেক ভোটার ভোটকেন্দ্রে এসেও ভোট দিতে পারেন নি। অনেক কেন্দ্রে ভোটার তালিকায় নাম বিহিন তরুনদের ভোটার লাইনে দাড়ানো অবস্থায় দেখা গেছে। তারা সাংবাদিকদের ভোটার স্লিপ এমনকি বাবার নাম পর্যন্ত বলতে পারেনি। জিজ্ঞাসা করলে জানান, এলাকার বড় ভাইয়ের নির্দেশে আমরা ভোটার লাইনে দাঁড়িয়েছি। বাস্তবে এসমস্ত তরুণদের ভোটার লাইনে দাড় করিয়ে রেখে ভিতরে সিল ছাপ্পর মেরে প্রভাবশালী প্রার্থীর বাক্স ভরে দেওয়া হচ্ছে। ভোর থেকে ছাত্রলীগ, যুবলীগ কর্মীরা ভোটকেন্দ্রের দখল নেয়। ক্ষমতাসীনরা তাদের বিজয়ের টার্গেট ২০১টি পৌরসভায় বিজয়ী হওয়ার জন্য সকল আয়োজন সম্পন্ন করেছে। বিচ্ছিন্ন, বিক্ষিপ্ত এবং পরিকল্পিতভাবে সরকার দলীয় কর্মীদের প্রভাবে বিরোধী দলীয় প্রার্থীর পক্ষের সমর্থকরা ভোটের আগের রাতেই অনেক এলাকা ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন। অনেক ভোটকেন্দ্রে ভোট স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে। অনেক প্রার্থীরা নির্বাচন বর্জন করেছেন। সেনাবাহিনী না দেওয়ায় নির্বাচন সুষ্ঠু হচ্ছে না। আওয়ামী সরকারের অধীনে কোন নির্বাচনই সুষ্ঠ, অবাধ ও নিরপেক্ষ হওয়া সম্ভব নয়।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *